(মুন্সীগঞ্জ) প্রতিনিধি:

সিরাজদিখান পাওনা টাকা চাইতে গেলে,
টাকা না দিয়ে উল্টা প্রাণনাশের হুমকী দিয়েছে, বাধ্য হয়ে থানায় অভিযোগ করেছে ভুক্তভোগী। উপজেলার ছাতিয়ানতলী গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

ভুক্তভোগী পাওনাদার রেশমা বেগম (৫০) স্বামী মতৃ শাহজাহান ঢালী জানান, ২০১৭ ইং অক্টাবর মাস ৩শত টাকার ষ্ট্যাম্পে (রজিস্ট্রি বিহীন কর্জনামা দলিল) ৩ জন স্বাক্ষীর মাকাবলায়, ৮ মাস সময় নিয় ১ লাখ ৩০ হাজার টাকা হাওলাদ নেয় আ. রহমান দেওয়ান (৫০) পিতা মতৃ ইয়ানুছ দওয়ান। সময় অতিবাহিত হলে টাকা ফেরত দেয় নাই। শালিস দরবার করলে দেই দিছি বলে নানা তালবাহানা করে।

গত সোমবার টাকা চাইতে গেলে আমাকে ও আমার পরিবারের লোকজনরে প্রাণনাশের হুমকী দেয় আ. রহমান ও তার স্ত্রী সুলতানা বেগম (৪৮) টাকা দিয়ে তাদের উপকার করে আজ আমি বিপদে। তাই কোন উপায় না পেয়ে বাধ্য হয়ে আইনের আশ্রয় নিতে মঙ্গলবার রাতে সিরাজদিখান থানায় অভিযাগ করছি।

আ. রহমানর সাথ যোগাযোগ করে পাওয়া যায়নি। এ ব্যাপার তার স্ত্রী সুলতানা পাওনা টাকা স্বীকার করে বলন, আমরা সমস্যায় আছি টাকা সেজন্য দিতে পারি নাই। তাদের সাথে খারাপ ব্যবহার বা কোন হমকী দেই নাই।

তারা পাওনাদার সেজন্য যখন তখন এস খারাপ ব্যবহার করে। আমি মাথা নিচু করে শুনি। আমার স্বামী ঢাকা গেছে।
থানার উপ-পরিদর্শক মীর শহিদুল ইসলাম, জানান, অভিযোগ পয়েছি, ওসি স্যারের নির্দেশে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। #