আরিফ হোসেন হারিছ

আসন্ন জেলা পরিষদ নির্বাচনে সিরাজদিখান উপজেলার সদস্য পদে প্রার্থী হয়েছেন মোঃ মাসুদ লস্কর। এ লক্ষ্যে স্থানীয় পর্যায়ে ব্যাপক প্রচার প্রচারণা চালাচ্ছেন উপজেলা আওয়ামী যুবলীগের যুগ্ন আহবায়ক ও রশুনিয়া উচ্চ বিদ্যালয় পরিচালনা পর্ষদের সভাপতি মোঃ মাসুদ লস্কর। দীর্ঘদিন ধরে জেলা পরিষদের সদস্য হওয়ার আশা নিয়ে সম্প্রতি তিনি সদস্য পদ প্রার্থী হিসেবে ঘোষণা দিয়ে মাঠে নেমেছেন। উপজেলার বিভিন্ন সভা সমাবেশে অংশগ্রহণের মধ্য দিয়ে জনসাধারণের কাছে প্রার্থী হিসেবে দোয়া ও সমর্থন কামণা করে বেড়াচ্ছেন। নির্বাচনী প্রচার প্রচারণার অংশ হিসেবে উপজেলার ১৪ টি ইউনিয়নের বিভিন্ন পয়েন্ট ও বিভিন্ন স্থানে প্রার্থী মোঃ মাসুদ লস্করের নির্বাচনী ব্যানার ফেস্টুন সাটানো হচ্ছে বেশ ঘটা করেই। প্রার্থী মোঃ মাসুদ লস্কর জনসাধারণের দোয়া ও ভালোবাসা নিয়ে জেলা পরিষদ নির্বাচনে অংশ গ্রহণের আশা ব্যক্ত করে বলেন, ‘সিরাজদিখান বাসীর সুখে দুঃখে সর্বদা পাশে থাকার জন্য জেলা পরিষদের সদস্য পদ প্রার্থী হয়েছি। আমি যদি নির্বাচিত হতে পারি তবে আমার সর্বোচ্চ দিয়ে জণগণের সেবা করার চেষ্টা করে যাবো। এ বলে তিনি সকলের নিকট দোয়া ও সমর্থন কামনা করেন। স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, প্রার্থী মোঃ মাসুদ লস্কর উপজেলা আওয়ামী যুবলীগে যুগ্ন আহবায়ক ও পাশাপাশি একটি বিদ্যালয়ের সভাপতি হিসেবে অর্পিত দায়িত্ব পালন করে আসছেন। প্রার্থী মোঃ মাসদু লস্কর তৃনমুল থেকে উঠে আসা আওয়ামী লীগের একজন নেতা হিসেবে স্থানীয় ভাবে বেশ সুপরিচিত। ইতিপূর্বে তিনি উপজেলা আওয়ামী যুবলীগ সাবেক যুগ্ম আহবায়ক, সাবেক সদস্য, আহ্বায়ক কমিটি সিরাজদিখান উপজেলা আওয়ামী যুবলীগ
রশুনীয়া ইউনিয়ন আওয়ামী যুবলীগের সাবেক যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক ছাত্রলীগ নেতা হিসেবে সুনামের সহিত দায়িত্ব পালন করেছেন। এছাড়া তিনি বিভিন্ন সামাজিক ও ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানের দায়িত্ব গ্রহণ করে সুনামের সহিত দায়ীত্ব পালন করে আসছেন। তিনি দলীয় ও সামাজিক প্রতিষ্ঠানের দায়ীত্ব পালন কালে প্রাতিষ্ঠানিক ও অপ্রাতিষ্ঠানিক ভাবে উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নের সুবিধাবঞ্চিত মানুষের পাশে দাড়ানোর পাশাপাশি করোনা কালীন সময়ে তাদেরকে ত্রাণ সামগ্রী ও আর্থিক সাহায্য সহযোগী করেছেন। উপজেলা ব্যপী জণসেবামূলক কার্যক্রমের কারণে মোঃ মাসুদ লস্করের বেশ জণপ্রিয়তা রয়েছে বলে স্থানীয় লোকজনের সাথে কথা বলে জানা যায়। এদিকে জেলা পরিষদ নির্বাচনে প্রার্থী মোঃ মাসুদ লস্করসহ মোঃ নেকবর হাজী বীর মুক্তিযোদ্ধা আলী আহাম্মদ বাচ্চু, মোঃ ফিরোজ ও মোঃ আলমগীর এ পাঁচজনের মধ্যে কেউ কেউ নিজেদের জেলা পরিষদের প্রার্থী হিসেবে ঘোষনা দিয়ে মাঠে নামলেও অন্যান্য প্রার্থীদের চাইতে প্রচার প্রচারণায় অনেকটাই এগিয়ে রয়েছেন প্রার্থী মোঃ মাসুদ লস্কর। অন্যদিকে উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নের বিভিন্ন শ্রেণি পেশার মানুষজন প্রার্থী মোঃ মাসুদ লস্করকে জেলা পরিষদের সদস্য হয়ে সিরাজদিখানের উন্নয়নের রূপকার হিসেবে পেতে চাইছেন এমনটাই আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নের বাসিন্দারা।

আপনার মতামত দিন