আরিফ হোসেন হারিছ সিরাজদিখান (মুন্সীগঞ্জ) প্রতিনিধিঃ

মুন্সীগঞ্জের সিরাজদিখানে মামা শ্বশুর বাড়ির ঘরের ফ্যানের সাথে গলায় রশি প্যাচানো এবং হাত বাধা অবস্থায় রাজন মন্ডল(৩০) নামের এক যুবকের রহস্য জনক ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করে সিরাজদিখান থানা পুলিশ। বুধবার সকালে উপজেলার চিত্রকোট ইউনিয়নের গোয়ালখালী গ্রামে নিহতের মামা শশুর অজিত মন্ডলের বাড়ীতে এ ঘটনা ঘটে। লাশ ময়না তদন্তের জন্য মুন্সীগঞ্জ সদর হাসপাতাল মর্গে থানা পুলিশ। গতকাল লাশটি তার স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করা হলে লাশ নিয়ে বিক্ষোভ করে স্বজনেরা। রাজন মন্ডলের স্বজনরা দাবি করে বলেন তাকে পরিকল্পিত ভাবে হত্যা করেছে। এ সময় তাঁরা রাজন মন্ডল হত্যায় জড়িত ব্যক্তিদের বিচারের দাবি জানান। রাজন মন্ডল ঢাকা জেলার কেরানীগঞ্জ উপজেলার গোবিন্দপুর গ্রামের গোপাল মন্ডলের পুত্র ।

পুলিশ ও নিহতের পরিবার সূত্রে জানা গেছে, গেলো জুন মাসের ৭ তারিখে রাজন মন্ডলের সাথে সিরাজদিখান উপজেলার গোয়ালখালী গ্রামের চিনিবাস মন্ডলের মেয়ে পূর্নিমা মন্ডলের (২৪) সাথে আনুষ্ঠানিক ভাবে বিয়ে হয় । বিয়ের এক মাসের মাথায় মামাতো শালার বিয়েতে এসে লাশ হলেন জামাই রাজন মন্ডল। মঙ্গলবার দিবাগত রাতে বিয়ে সম্পন্ন করে পাশের বাড়ী আরেক মামা শশুর অজিত মন্ডলের বিল্ডিং দ্বিতীয় তলায় ঘুমাতে জান । সকাল ৭ টার দিকে বাড়ীর লোকজন ফ্যানের সাথে ঝুলানো এবং হাত বাধা অবস্থায় দেখতে পেয়ে পুলিশকে খবর দিলে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে ।

বৃহস্পতিবার ৭জুলাই বিকেলে কেরানীগঞ্জ উপজেলার গোবিন্দপুর শ্মশানে বিক্ষোভে বক্তারা বলেন, তাঁরা এই হত্যাকাণ্ডের দ্রুত বিচার চান। পুলিশকে দ্রুত আসামিদের গ্রেপ্তার করতে হবে। এ সময় বিচারের দাবিতে তাঁরা বিভিন্ন স্লোগান দেন।